Info

পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য, প্রস্থ ও উচ্চতা কত মিটার? পদ্মা সেতুর টোল, খরচ, পিলার ও স্প্যান সংখ্যা

পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য, প্রস্থ ও উচ্চতা কত মিটার? পদ্মা সেতুর টোল, খরচ, পিলার ও স্প্যান সংখ্যা কতটি

পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য, প্রস্থ ও উচ্চতা কত মিটার? পদ্মা সেতুর টোল, খরচ, পিলার ও স্প্যান সংখ্যা

পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য প্রস্থ ও উচ্চতা কত মিটার? পদ্মা সেতুর টোল খরচ পিলার ও স্প্যান সংখ্যা কতটি দেখুন । বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম, আসসালামু আলাইকুম; সকলের সুন্দর ও সুস্থ জীবন কামনা করে শুরু করছি আজকের আর্টিকেলটি । যেখানে আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করব স্বপ্নের পদ্মা সেতুর বিভিন্ন তথ্য ও উপাত্ত । যা আপনার ‘সাধারণ জ্ঞান’ জ্ঞানের মেধাকে যেমন বাড়াবে, ঠিক তেমনিভাবে বিসিএস সহ যে কোন ধরনের প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় পদ্মাসেতু নিয়ে আসা প্রশ্নের উত্তর পেটে সহয়তা করবে । এছাড়াও একজন বাঙালি হিসেবে স্বপ্নের পদ্মা সম্পর্কে বহু তথ্য উপাত্ত জানতে আপনাদের সাহায্য করবে তো চলুন শুরু করা যাক ।

এক নজরে দেখে নিন পদ্মা সেতুর অফিসিয়াল তথ্য

নাম : পদ্মা সেতু
উদ্বোধন : ২৫শে জুন, ২০২২ তারিখ রোজ; শনিবার
দৈর্ঘ্য : ৬.১৫ কিলোমিটার
ভায়াডাক্ট (স্থলভাগে সেতুর অংশ) সহ দৈর্ঘ্য : ৯.৮৩ কিলোমিটার
প্রস্ত : ২১.৬৫ মিটার
মোট পিলারের সংখ্যা : ৪২টি
স্প্যানের সংখ্যা : ৪১টি
প্রতিটি স্প্যানের দৈর্ঘ্য: ১৫০ মিটার
স্প্যানগুলোর মোট ওজন: ১,১৬,৩৮৮টন
প্রতিটি পিলারে নিচে পাইলের সংখ্যা: ৬টি (কিছু কিছু পিলারে ৭টি পাইলও দেওয়া হয়েছে)
পাইলের ব্যাস: ৩ মিটার
পাইলের সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্য: ১২৮ মিটার
মোট পাইলের সংখ্যা: ২৬৪টি ( ভায়াডাক্টের পিলারের পাইলসহ ২৯৪টি)
জমি অধিগ্রহণ: ৯১৮ হেক্টর
ব্যবহৃত স্টিলের পরিমাণ : ১,৪৬,০০০ মেট্রিক টন
নির্মাণ কাজ শুরু : ৭ই ডিসেম্বর ২০১৪
মূল সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু : মাওয়া প্রান্তে ৬ নম্বর পিলারের কাজ দিয়ে
সক্ষমতা : দৈনিক ৭৫ হাজার যানবাহন
পানির স্তর থেকে সেতুর উচ্চতা: ১৮ মিটার
পদ্মা সেতুর আকৃতি: ইংরেজি এস (S) অক্ষরের মতো
ভূমিকম্প সহনশীলতা : রিক্টার স্কেলে ৮ মাত্রার কম্পন
এপ্রোচ রোডের দৈর্ঘ্য: ১২ কিলোমিটার
নদীশাসন: ১৬.২১ কিলোমিটার
সেতুর আয়ুষ্কাল: ১০০ বছর
সেতুর মোট ব্যয়: ৩০,১৯৩.৩৯ কোটি
ঢাকার সঙ্গে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ প্রতিষ্ঠিত হবে এমন জেলার সংখ্যা: ২১টি
সরাসরি উপকারভোগী মানুষের সংখ্যা: দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলের ৩ কোটি মানুষ
যেসব দেশের বিশেষজ্ঞ ও প্রকৌশলীরা কাজ করেছেন : চীন, ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জার্মানি, অট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ন্যাদারল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, জাপান, ডেনমার্ক, ইতালি, মালয়েশিয়া, কলম্বিয়া, ফিলিপাইন, থাইওয়ান, নেপাল ও দক্ষিণ আফ্রিকা।
প্রকল্পের অঙ্গ(component) ভিত্তিক ব্যয় বিভাজন:
ক) মূল সেতুর ব্যয়: ৪০০ কেভি ট্রান্সমিশন লাইন টাওয়ার ও গ্যাস

পদ্মা সেতুর প্রথম স্প্যানটি বসানো হয় কবে ?
উত্তরঃ ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর
প্রথম স্প্যানটি বসানো হয় কোথায়?
উত্তরঃ ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুটির/পিলারের উপর
শেষ/৪১ তম স্প্যানটি বসানো হয় কোথায় ?
উত্তরঃ ১২ ও ১৩ নম্বর খুটির উপরে
সংযোগ স্থাপন করে কতটি জেলার সাথে?
উত্তরঃ মোট ২৯ টি জেলার সাথে ,দক্ষিন ও দক্ষিন পশ্চিমের ২১ টি জেলার সাথে।
৪১ টি স্প্যান বসাতে সময় লাগে কতদিন?
উত্তরঃ ৩ বছর ২ মাস ১০ দিন।
সেতুর মোট দৈর্ঘ্য কত ?
উত্তরঃ ৯.৩০ কি.মি .(৩. ১৫ কি.মি . সংযোগ সড়কসহ)
শুধু সেতুটির দৈর্ঘ্য কত?
উত্তরঃ ৬ .১৫ কি.মি .
৪১ তম স্প্যান বসে কবে ?
উত্তরঃ ১০ ডিসেম্বর ২০২০
প্রতিটি স্প্যানের দৈর্ঘ্য কত ?
উত্তরঃ ১৫০ মিটার।
প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি কতভাগ?
উত্তরঃ ৮২.৫%
সংযোগকারি স্থানসমূহ কি কি ?
উত্তরঃ মুন্সিগঞ্জের মাওয়া এবং শরিয়তপুরের জাজিরা।

পদ্মা সেতু যে দিক দিয়ে সেরা

বাংলাদেশের দীর্ঘতম সড়ক সেতু-পদ্মা সেতু
এর আগে দীর্ঘতম সড়ক সেতু ছিলো-যমুনা সেতু
বাংলাদেশের দীর্ঘতম রেল সেতু -হার্ডিঞ্জ ব্রিজ
নদীর উপর নির্মিত বিশ্বের প্রথম দীর্ঘতম সেতু-পদ্মা সেতু
পদ্মা সেতুর কাজ শুরু হয়েছিলো – ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে
প্রতিটি স্প্যানের ওজন -৩২০০ টন
পদ্মা সেতুর শেষ স্প্যান বসানো হয় যে দিবসে-বিশ্ব মানবাধিকার দিবস
পদ্মা সেতুর প্রকল্পের নাম ‘পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্প’।
পদ্মা সেতুর ধরন দ্বিতলবিশিষ্ট। এই সেতু কংক্রিট আর স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে (যা বিশ্বে প্রথম)।
পদ্মা সেতু প্রকল্পে মোট ব্যয় (মূল সেতুতে) ৩০ হাজার ৭৯৩ কোটি ৩৯ লাখ টাকা।
পদ্মা সেতু নির্মাণে চুক্তিবদ্ধ কোম্পানির নাম চায়না রেলওয়ে গ্রুপ লিমিটেড এর আওতাধীন চায়না মেজর ব্রিজ কোম্পানি লিমিটেড।
পদ্মা সেতুতে থাকবে গ্যাস, বিদ্যুৎ ও অপটিক্যাল ফাইবার সংযোগ পরিবহন সুবিধা।
পদ্মা সেতুতে রেললাইন স্থাপন হচ্ছে স্প্যানের মধ্য দিয়ে।
পদ্মা সেতুর প্রস্থ হবে ৭২ ফুট, এতে থাকবে চার লেনের সড়ক। মাঝখানে রোড ডিভাইডার।
পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার।
পদ্মা সেতুর ভায়াডাক্ট ৩ দশমিক ১৮ কিলোমিটার।
পদ্মা সেতুর সংযোগ সড়ক দুই প্রান্তে (জাজিরা ও মাওয়া) ১৪ কিলোমিটার।
পদ্মা সেতু প্রকল্পে নদীশাসন হয়েছে দুই পাড়ে ১২ কিলোমিটার।
পদ্মা সেতু প্রকল্পে কাজ করছে প্রায় চার হাজার মানুষ।
পদ্মা সেতুর ভায়াডাক্ট পিলার ৮১টি।
পানির স্তর থেকে পদ্মা সেতুর উচ্চতা রয়েছে ৬০ ফুট।
পদ্মা সেতুর পাইলিং গভীরতা ৩৮৩ ফুট।
পদ্মা সেতুর মোট পিলারের সংখ্যা ৪২টি, স্প্যান ৪১টি।
প্রতি পিলারের জন্য পাইলিং হয়েছে ৬টি। তবে মাটি জটিলতার কারণে ২২টি পিলারের পাইলিং হয়েছে ৭টি করে।
পদ্মা সেতুর মোট পাইলিংয়ের সংখ্যা ২৮৬টি।
পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হবে ২০২১ সালের ডিসেম্বরে।

স্বপ্নের পদ্মা সেতু

অবশেষে উদ্বোধন হলো বাংলাদেশের মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতু । ২৫ জুন ২০২২ তারিখ রোজ শনিবার বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন । গত ৭ ডিসেম্বর, ২০১৪ সালে মূল সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয় মাওয়া প্রান্তে ৬ নম্বর পিলারের কাজ দিয়ে । পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হয় ২০২১ সালের ডিসেম্বরে। সেতুর কাজ ২০১৪ সালের ২৬ নভেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চীনের মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং করপোরেশন (এমবিইসি)। কাজ শেষ হলেও প্রকল্পের মেয়াদ রয়েছে আরো এক বছর। ২০২৩ সালের ৩০ জুন এই প্রকল্প শেষ হবে। আগামী এক বছরের মধ্যে নির্মাণ কাজের কোনো ত্রুটি থাকলে, তা নিজ দায়িত্বে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেরামত বা পুনঃনির্মাণ করে দেবে।

পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য, প্রস্থ ও উচ্চতা কত মিটার?

এই অংশে আমরা পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য প্রস্থ ও উচ্চতা কত মিটার তা নিয়ে আলোচনা করব । পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য ৯.৩০ কিলোমিটার যেখানে সংযোগ সড়কসহ ৩.১৫ কিলোমিটার অর্থাৎ শুধু সেতুটির দৈর্ঘ্য ৬.১৫ কিলোমিটার । এছাড়াও প্রতিটি স্প্যানের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার এবং প্রস্থ ২১.৬৫ মিটার । পানির স্তর থেকে পদ্মা সেতুর উচ্চতা রয়েছে পদ্মা ৬০ ফুট ।

পদ্মা সেতুর পিলার ও স্পান সংখ্যা কতটি?

স্বপ্নের পদ্মা সেতু নিয়ে এই অংশে আমরা জানবো পদ্মা সেতুর পিলার সংখ্যা মোট কতটি । পদ্মা সেতুর প্রথম স্প্যান বসানো হয় ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর । প্রথম স্প্যানটি বসানো হয় ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিলারের উপর । এবং শেষ অর্থাৎ ৪১ তম স্প্যানটি বসানো হয় ১২ ও ১৩ নম্বর খুটির উপরে । যেখানে প্রতিটি স্প্যানের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার এবং প্রস্থ ২১.৬৫ মিটার । ৪১ টি স্প্যান বসাতে সময় লাগে ৩ বছর ২ মাস ১০ দিন । উল্লেখ্য যে, পদ্মা সেতুর পিলার ৪২টি এবং স্প্যানের সংখ্যা ৪১টি । উক্ত ৪১ টি স্প্যানগুলোর মোট ওজন: ১,১৬,৩৮৮ টন ।

পদ্মা সেতু নির্ধারিত টোল

যানবাহনের শ্রেণীবিভাগ নির্ধারণ করে মোট ১৩টি শ্রেণীর যানবাহনের কাছে থেকে পদ্মা সেতুর নির্ধারিত টোল আদায় করা হবে । যার জন্য ইতিমধ্যেই প্রতিটি যানবাহনের টোল আদায়ের লিস্ট নির্ধারণ করা হয়েছে । আধুনিক পদ্ধতিতে মাত্র তিন সেকেন্ডের মাধ্যমে প্রতিটি মান নির্ণয় করা হবে । নিচের ছকে পদ্মা সেতুর নির্ধারিত টোল আদায়ের যানবাহনসহ টাকা উল্লেখ করা হলো ।

ক্রমিক

যানবাহনের শ্রেণি

টোল হার (টাকায়)

মোটরসাইকেল

১০০.০০

কার, জীপ

৭৫০.০০

পিকআপ

১২০০.০০

মাইক্রোবাস

১৩০০.০০

ছোট বাস (৩১ আসন বা এর কম)

১৪০০.০০

মাঝারি বাস (৩২ আসন বা এর বেশি)

২০০০.০০

বড় বাস (৩ এক্সেল)

২৪০০.০০

ছোট ট্রাক(৫ টন পর্যন্ত)

১৬০০.০০

মাঝারি ট্রাক (৫ টন এর অধিক হতে ৮ টন পর্যন্ত)

২১০০.০০

১০

মাঝারি ট্রাক (৮ টনের অধিক হতে ১১ টন পর্যন্ত)

২৮০০.০০

১১

ট্রাক (৩ এক্সেল পর্যন্ত)

৫৫০০.০০

১২

ট্রেইলার (৩ এক্সের পর্যন্ত)

৬০০০.০০

১৩

ট্রেইলার (৪ এক্সেলের অধিক)

৬০০০.০০ + প্রতি এক্সেল ১৫০০.০০

পদ্মা সেতু বিশ্বের কততম সেতু?

আমাদের স্বপ্নের পদ্মা সেতু বিশ্বের মধ্যে ১২২ তম স্থানে অবস্থান করছে । ইতোমধ্যেই আমাদের পদ্মা সেতু সুইডেনের অল্যান্ড ব্রিজকে পেছনে ফেলে ১২২ তম অবস্থান নিয়েছে । যা বাঙালি জাতি হিসেবে আমাদের একটি গর্বের বিষয় মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে প্রমত্ত পদ্মার বুকে সবচেয়ে বড় অবকাঠামো হয়ে ।

পদ্মা সেতুর বাজেট ২০২২, নির্মাণে মোট খরচ বা ব্যয়

পদ্মা সেতু বাংলাদেশের পদ্মা নদীর উপর নির্মিত একটি বহুমুখী সড়ক ও রেল সেতু । এর মাধ্যমে মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের সাথে শরীয়তপুর ও মাদারীপুর জেলা যুক্ত হয় । দুই স্তর বিশিষ্ট স্টিল ও কংক্রিট নির্মিত ট্রাসের এই সেতুর উপরের স্তরে চার লেনের সড়ক পথ এবং নিচের স্তরে একটি একক রেলপথ রয়েছে । পদ্মা-ব্রহ্মপুত্র-মেঘনা নদীর অববাহিকায় সেতুটি অবস্থিত । পদ্মা সেতু নির্মাণে মোট খরচ করা হয় ৩০ হাজার ১৯৩ দশমিক ৩৯ কোটি টাকা । এসব খরচের মধ্যে রয়েছে সেতুর অবকাঠামো তৈরি, নদী শাসন, সংযোগ সড়ক, ভূমি অধিগ্রহণ, পুনর্বাসন ও পরিবেশ, বেতন-ভাতা ইত্যাদি । বাংলাদেশের অর্থ বিভাগের সঙ্গে সেতু বিভাগের চুক্তি অনুযায়ী, সেতু নির্মাণে ২৯ হাজার ৮৯৩ কোটি টাকা ঋণ দেয় সরকার । ১ শতাংশ সুদ হারে ৩৫ বছরের মধ্যে সেটি পরিশোধ করবে সেতু কর্তৃপক্ষ ।

উপসংহারে

নানা চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে প্রমত্তা পদ্মার বুকে বাংলার গর্ব হয় মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু । যা মোট ২৯ টি জেলার সাথে ,দক্ষিন ও দক্ষিন পশ্চিমের ২১ টি জেলার সাথে সংযোগ স্থাপন করেছে । এ সেতুর মধ্য দিয়ে মানুষ নানা দুর্ভোগ, দুর্যোগ অবশেষে শান্তির একটি নিরাপত্তা যোগাযোগ স্থাপন করতে পেরেছে ।

EducationResultBD

I hope you are enjoying this article. Thanks for visiting this website & stay connected with us.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button